ফেসবুক পেজ মনিটাইজেশন থেকে আয়

ফেসবুক পেজ মনিটাইজেশন থেকে আয়ঃ বর্তমান সময়ে সবচেয়ে জনপ্রিয় একটি প্ল্যাটফর্ম ফেসবুক। যেখানে আয় করার জন্য রয়েছে অনেক অনেক উপায়। এতদিন পর্যন্ত ইউটিউবে বেশি অর্থ উপার্জন করা যেত। কিন্তু সম্প্রতি ফেসবুক এমন কিছু মাধ্যম চালু করেছে, যে কারণে খুব সহজেই আয় করা সম্ভব মোটা অংকের টাকা।

অনেকেই এখন ফেসবুক পেজ মনিটাইজেশন থেকে আয় করার কথাটি জানেন। কিন্তু অবশ্যই ফেসবুক পেজ মনিটাইজেশন থেকে আয় করতে চাইলে কিছু শর্ত মানতে হবে। আপনি যেমন অফিসে কাজ করলে সেই অফিসের কিছু রুলস মেনে চলতে হয়, ঠিক একইভাবে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে যদি কাজ করতে চান সেই কোম্পানি বা ওয়েবসাইটের কিছু শর্তাবলী আপনাকে অবশ্যই অনুসরণ করতে হবে।

তো প্রিয় পাঠক বন্ধুরা চলুন আজকের এই আলোচনা পর্বে আমরা জেনে নেই ফেসবুক পেজ মনিটাইজেশন থেকে আয় করার উপায় এবং ২০২২ সালে ফেসবুক পেজ মনিটাইজেশনের জন্য কি কি শর্তাবলী আরোপ করা হয়েছে সে সম্পর্কে বিস্তারিত। আশা করি আজকের এই আর্টিকেলটি আপনাদের অনেক উপকারে আসবে তাহলে চলুন শুরু করি।

ফেসবুক পেজ কি?

ফেসবুক পেজ মনিটাইজেশনের রুলস জানার পূর্বে আমাদের জানা প্রয়োজন facebook পেজ বলতে আমরা কি বুঝি? বর্তমানে ইউটিউবের মতো ফেসবুকে ভিডিও শেয়ারের একটি মাধ্যম চালু হয়েছে। এখানে বিভিন্ন রকমের কনটেন্ট ক্রিয়েট করে পাবলিশ করার মাধ্যমে অর্থ উপার্জন করা সম্ভব হয়।

আর বিভিন্ন পোস্ট ভিডিও বা ইমেজ পাবলিশ করার সেই জায়গাটাই হচ্ছে ফেসবুক পেজ। যেখানে আপনি নিয়মিত আপনার তৈরি করা কনটেন্ট আপলোড করবেন এবং ফেসবুক কর্তৃপক্ষের নিয়ম নীতি মেনে কাজ করার মাধ্যমে মনিটাইজেশন অন করতে পারবেন সেই সাথে উপার্জন করতে পারবেন টাকা।

ফেসবুক মনিটাইজেশন শর্ত সমূহ ফেসবুক মনিটাইজেশন থেকে আয় এবং এর শর্ত সমূহ কি কি?

ফেসবুক মনিটাইজেশনের মাধ্যমে যদি আপনি আয় করতে চান তাহলে অবশ্যই আপনাকে তাদের নির্ধারিত শর্ত সমূহ মানতে হবে। সেগুলো হচ্ছে,

  • দশ হাজার ফলোয়ার সংগ্রহ করা
  • নিয়মিত ভিডিও আপলোড করা
  • তিন মাসের মধ্যে ৬০০,০০০ মিনিট ওয়াচ টাইম

ফেসবুকে মনিটাইজেশন অন করার জন্য ইউটিউবের মতো অনেক কঠিন রুলস মানতে হয় না। ইউটিউবের চাইতে ফেসবুকের শর্তাবলী অনেকটাই সহজ। এখানে মূলত চার ধরনের মনিটাইজেশন সুবিধা পাওয়া যায়। আপাতত দুই ধরনের মনিটাইজেশন সুবিধা চালু রয়েছে। সেগুলো হলো: 

  • ইন স্ট্রিম অ্যান্ডস
  • Fun subscriptions
  • স্টার্স
  • ব্র্যান্ড কলম্বাস ম্যানেজার

এরমধ্যে ইন স্ট্রিম এন্ডস এবং ব্র্যান্ড কলম্বাস ম্যানেজার এই দুটি মাধ্যমের সুবিধা চালু আছে। আপনি যদি ইন স্ট্রিম অ্যাডস এর মাধ্যমে মনিটাইজেশন অন করতে চান আপনার ফেসবুক পেজ, তাহলে আপনাকে তিনটি শর্ত মানতে হবে।

১. পেজ এর বয়স

২. ফলোয়ার্স

৩. তিন মিনিটের ভিডিওতে কমপক্ষে এক মিনিট ভিউ।

আপুর দিকে আপনি যদি ব্র্যান্ড কলম্বাস ম্যানেজার মাধ্যমটি অবলম্বন করে ফেসবুক মনিটাইজেশন করতে চান তাহলে সে ক্ষেত্রে আপনাকে আলাদা কিছু শর্ত মানতে হবে। মূলত ফেসবুকের যে কয়টি মনিটাইজেশনের প্রক্রিয়া রয়েছে তার মধ্যে সবচেয়ে সহজ প্রক্রিয়াটি হল এই ব্র্যান্ড কলম্বাস ম্যানেজার। এর জন্য আপনাকে যে শর্তগুলো মানতে হবে তা হচ্ছে,

১. ১০০০০ ফলোয়ার

২. ৬০ দিনের মধ্যে ১৫ হাজার পোস্ট এনগেজমেন্ট

৩. তিন মিনিটের ভিডিও গুলোতে ৬০ দিনের মধ্যে এক মিনিট করে ত্রিশ হাজার ভিউ। 

ফেসবুক পেজ মনিটাইজেশনের জন্য কি কি করতে হবে?

বেশ মনিটাইজেশনের শর্ত সমূহ ইতোমধ্যে আমরা জেনেছি। কিন্তু আপনি যদি ফেসবুক পেইজ মনিটাইজেশনের জন্য উপযুক্ত করতে চান তাহলে আপনাকে কি কি করতে হবে সে সম্পর্কে জানাটা অত্যন্ত প্রয়োজন। তাই আলোচনার এ পর্যায়ে আমরা জানব একটি ফেসবুক পেজ মনিটাইজেশন এর জন্য উপযুক্ত করে গড়ে তোলার কিছু উপায়। 

  • নিজস্ব কনটেন্ট নিয়মিত পাবলিশ করতে হবে
  • কনটেন্ট একই সময় পাবলিশ করার বিষয়টি খেয়াল রাখতে হবে
  • নির্ধারিত সময়সীমার মধ্যে কনটেন্টের রিচ বাড়াতে হবে
  • ফ্যান ফলোয়ার লাইক কমেন্ট বৃদ্ধি করতে হবে

আর শর্তে উল্লেখিত প্রত্যেকটি বিষয় যদি আপনি মেনে চলতে পারেন এবং আপনার ফেসবুক পেজটি গড়ে তুলতে পারেন তাহলে অবশ্যই আপনি মনিটাইজেশনের জন্য এপ্লাই করতে পারবেন এবং খুব তাড়াতাড়ি আপনার ফেসবুক পেজ মনিটাইজেশন পাবে। 

ফেসবুক পেজ মনিটাইজেশনের নিয়ম

এখন কথা হচ্ছে আপনি ফেসবুক পেজ মনিটাইজেশন পেতে কিভাবে এপ্লাই করবেন? এজন্য আপনাকে কি কি করতে হবে? মানে কোথায় কিভাবে কোন মাধ্যমে আপনি ফেসবুক পেজ মনিটাইজেশনের এপ্লাই করবেন?এর জন্য আপনাকে যা যা করতে হবে স্টেপ বাই স্টেপ জেনে নিন।

প্রথমত: ফেসবুক পেজের রুমে গিয়ে সেখানে মনিটাইজেশন অপশনে ক্লিক করতে হবে। আর আপনার পেজটি মনিটাইজেশন করার যোগ্য কিনা সেটা যাচাই-বাছাই করতে হবে।

দ্বিতীয়তঃ: আপনার পেজে যদি কোন সমস্যা থেকে থাকে তাহলে পাশে থাকা হলুদ বৃত্তটি বড় দেখা যাবে সেই সঙ্গে যদি পেইজটি কোন ভাবে মনিটাইজেশনের জন্য প্রস্তুত না থাকে তবে পাশে থাকা লাল চিহ্নটি অনেক বড় দেখাবে। কিন্তু সবগুলো যদি গ্রিন কালার থাকে মানে আপনার পেজটি একদম উপযুক্ত হয় তাহলে আপনি মনিটাইজেশনের এপ্লাই লিংকে গিয়ে খুব সহজেই আপনার পেজ মনিটাইজেশন অন করার জন্য আবেদন করতে পারবেন।

ফেসবুক পেজ মনিটাইজেশনের ক্ষেত্রে কোন কোন বিষয় মাথায় রাখা অতি আবশ্যক?

যেহেতু আপনি টাকা ইনকামের জন্য আপনার পেজ মনিটাইজেশন করবেন তাই কষ্ট করে একটি পেজ দাঁড় করানোর জন্য আপনাকে বেশ কিছু নিয়মকানুন জানতে হবে এবং কিছু বিষয় মাথায় রাখতে হবে। ফেসবুক পেজ মনিটাইজেশনের জন্য আপনি অবশ্যই যে কথাগুলো মাথায় থেকে মুছে ফেলবেন না। সেগুলো হচ্ছে,

  • অন্যের কপি করা ভিডিও কখনোই আপনার পেজে আপলোড করবেন না
  • স্লাইড শো ভিডিও আপলোড করা থেকে দূরে থাকবেন।  কারন ফেসবুক কর্তৃপক্ষ এগুলো অ্যাপ্রুভ করে না।
  • আপনি যে অ্যাকাউন্ট দিয়ে আপনার পেজ তৈরি করেছেন অথবা এডমিন অ্যাকাউন্ট বা আপনার অন্য কোন একাউন্ট যদি আপনার এডমিন একাউন্টের সাথে কানেক্টেড থাকে তাহলে আপনার আপলোড করা ভিডিওটি ভুলেও শেয়ার করবেন না।
  • আপনার ফেসবুক পেজে যে ফোন নাম্বার বা ইমেইল দেওয়া রয়েছে সেই ফোন নাম্বার বা ইমেইল দিয়ে তৈরি ইনস্টাগ্রাম অথবা হোয়াটসঅ্যাপ অ্যাকাউন্ট এও কোন ভিডিও শেয়ার করবেন না। 
  • সেই সাথে কপিরাইট ফ্রি মিউজিক ব্যবহার করতে ভুলবেন না।

আমাদের শেষ কথাঃ তো দর্শক এই ছিল আমাদের আজকের আলোচনা পর্ব। ফেসবুক পেজ মনিটাইজেশন থেকে আয় ফেসবুক মনিটাইজেশনের শর্ত সমূহ ২০২২ সম্পর্কে আজকের আর্টিকেলটি আপনাদের কেমন লাগলো অবশ্যই কমেন্ট করে জানাবেন সেই সাথে কোন মতামত থেকে থাকলে শেয়ার করবেন।

পরবর্তীতে আবারো নতুন টপিকের নতুন কোন আলোচনা পর্বে দেখা হবে। ততক্ষণ পর্যন্ত সবাই ভালো থাকবেন। আল্লাহ হাফেজ।

About Shanto Khan

Tech Shanto is a Bangladeshi YouTuber and Freelancer who loves to share his experience with all. If you want to learn awesome tips and tricks with Tech Shanto then stay connected.

View all posts by Shanto Khan →

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *