বিকাশ পার্সোনাল রিটেইল একাউন্ট কি | বিকাশ পার্সোনাল রিটেইল একাউন্ট খোলার নিয়ম

বিকাশ পার্সোনাল রিটেইল একাউন্ট কি | বিকাশ পার্সোনাল রিটেইল একাউন্ট খোলার নিয়ম: আসসালামু আলাইকুম, ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীদের জন্য দারুন একটি সুখবর, কেননা ইতোমধ্যে বিকাশের একটি নতুন ফিচার হয়ে যুক্ত হয়েছে বিকাশ পার্সোনাল রিটেইল একাউন্ট ক্রিয়েট করার মাধ্যম। এটা আমরা সবাই জানি– বিকাশ বাংলাদেশ মোবাইল ব্যাংকিং পরিষেবার একটি জনপ্রিয় মাধ্যম। যার গ্রাহক সংখ্যা অনেক অনেক বেশি।

তো আপনারা যারা বিকাশ পার্সোনাল রিটেইল অ্যাকাউন্ট কি, এটি কি কাজে লাগে? কিভাবে ব্যবহৃত হয় এবং এর সুযোগ সুবিধা গুলো কি কি, সেই সাথে বিকাশ পার্সোনাল রিটেইল অ্যাকাউন্ট খোলার পদ্ধতি কি ইত্যাদি সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে চান, তাহলে আমরা বলব আজকের এই আর্টিকেলটি একদম স্কিপ না করে শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত পড়ুন। কেননা আমাদের আজকের আলোচনায় থাকছে:

✓ Bkash Personal Retail Account কি?

✓ বিকাশ পার্সোনাল রিটেইল অ্যাকাউন্ট এর কাজ কি?

✓ বিকাশ পার্সোনাল রিটেইল একাউন্ট রেজিস্ট্রেশন করার পদ্ধতি কি কি?

✓ বিকাশ পার্সোনাল রিটেইল একাউন্ট রেজিস্ট্রেশন এর প্রয়োজনীয় ডকুমেন্ট কি কি?

✓ বিকাশ পার্সোনাল রিটেইল একাউন্ট কাদের জন্য উপযুক্ত বা কারা বিকাশ পার্সোনাল      রিটেইল অ্যাকাউন্ট ক্রিয়েট করতে পারবেন? 

✓ বিকাশ পার্সোনাল রিটেইল একাউন্টের সুবিধা সমূহ

✓ বিকাশ পার্সোনাল রিটেইল একাউন্ট এর ট্রানজেকশন লিমিট ও 

✓ বিকাশ পার্সোনাল রিটেইল একাউন্ট এর আরো বিস্তারিত তথ্য।

বিকাশ পার্সোনাল রিটেইল একাউন্ট কি?

বিকাশ personal retail account হলো বিকাশ মোবাইল ব্যাংকিং পরিষেবার একটি নতুন ফিচার। আমরা প্রত্যেকে জানি, টাকা আদান প্রদানের জন্য দেশের মধ্যে সবচেয়ে জনপ্রিয় মোবাইল ব্যাংকিং পরিষেবা বিকাশ। যার গ্রাহক সংখ্যা অনেক বেশি। শহর থেকে শুরু করে গ্রাম অঞ্চল–  প্রায় সাধারণ মানুষ সবার মুখে মুখে বিকাশ শব্দটি পরিচিত। খুব অল্প সংখ্যক মানুষ রয়েছে যারা বর্তমান সময়ে দাঁড়িয়েও বিকাশ এর সেবা ভোগ করছেন না।

আমরা প্রত্যেকেই অবগত যে বিকাশ আমাদেরকে বেশ কিছু সুযোগ-সুবিধা প্রদান করে। যেমন: অর্থ লেনদেনের সুবিধা, ঘরে বসে মোবাইল রিচার্জ করার সুবিধা, ক্যাশ আউট, ক্যাশ ইন, বিদ্যুৎ বিল পরিশোধের সুবিধা, ইত্যাদি ইত্যাদি। কিন্তু বিকাশ ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী, ভাসমান উদ্যোক্তা এবং অনলাইন ভিত্তিক উদ্যোক্তাদের জন্য, তাদের পক্ষ থেকে এমন একটি অ্যাকাউন্ট ক্রিয়েট করার ব্যবস্থা প্রদান করেছে, যার মাধ্যমে খুব সহজেই এবং দ্রুত একাউন্ট খোলা যাবে. সেই সাথে গ্রাহকের কাছ থেকে পণ্য এবং সেবা প্রদানের বিপরীতে পেমেন্ট নেওয়া যাবে। তাই আপনারা যারা ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী রয়েছেন তারা লেনদেন সুবিধার জন্য পার্সোনাল রিটেইল একাউন্ট ফিচারটি চালু করতে পারেন বিকাশে।

তবে হ্যাঁ– অবশ্যই নির্ধারিত সাইট বা কোন পেজ ছাড়া অন্য কোথাও আপনার এই অ্যাকাউন্টের গুরুত্বপূর্ণ তথ্যগুলো শেয়ার করবেন না। মজার ব্যাপার হচ্ছে এই বিকাশ পার্সোনাল রিটেইল অ্যাকাউন্ট হোল্ডার বিকাশের ৫ কোটিরও বেশি গ্রাহকদের পেমেন্ট যেকোনো সময় গ্রহণ করতে পারবেন সেই সাথে ব্যবসা পরিচালনার জন্য তাদের সাপ্লাইয়ার ভ্যালু চেইনের পেমেন্ট পরিশোধ করতে পারবেন। উদ্যোক্তা বা ব্যবসায়ীদের জন্য দারুন সুযোগ ও স্মার্ট ব্যবস্থাপনা। 

বিকাশ পার্সোনাল রিটেইল অ্যাকাউন্ট এর ব্যবহার কি?

দেখুন ইতোমধ্যে আমরা আপনাদেরকে জানিয়েছি যে–  ক্ষুদ্র বা মাঝারি ব্যবসায়ী, অনলাইন ভিত্তিক উদ্যোক্তা বা ভাসমান উদ্যোক্তাদের জন্য ব্যবসাকে আরো সহজ এবং শক্তিশালী করার লক্ষ্যে বিকাশ মোবাইল ব্যাংকিং পরিষেবা একটি নতুন ফিচার যুক্ত করেছে, যার নাম বিকাশ পার্সোনাল রিটেইল অ্যাকাউন্ট। অনেকেই জানেন না বিকাশ পার্সোনাল রিটেইল অ্যাকাউন্ট এর মূলত কাজ কি? তাদেরকে বলব– বিকাশ পার্সোনাল রিটেইল একাউন্ট এর কাজ হল লেনদেনের সুযোগ করে দেওয়া অর্থাৎ গ্রাহকদের কাছ থেকে পণ্য এবং সেবা প্রদানের বিপরীতে পেমেন্ট নেওয়ার ব্যবস্থা প্রদান করা। 

আপনি যদি একটু লক্ষ্য করেন তাহলে অনেক সময় দেখতে পাবেন, ব্যবসার ক্ষেত্রে কিছু কাস্টমার পার্সোনাল একাউন্টে টাকা পে করতে কিছুটা ইতস্তত বোধ করেন। কিন্তু কোন কোম্পানি বা কোন ব্যবসায়িকের যদি একটি পার্সোনাল রিটেইল একাউন্ট থেকে থাকে তাহলে তারা সেখানে খুব সহজে পেমেন্ট করতে স্বাচ্ছন্দ বোধ করেন। আর এর মাধ্যমে কাস্টমারের সাথে একটা ভালো বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক তৈরি হয়। বিকাশ পার্সোনাল একাউন্ট এর মূলত কাজ হচ্ছে লেনদেনের একটি সুন্দর সুযোগ করে দেওয়া যেখানে প্রতি লেনদেনের লিমিট হয়ে থাকে ৩০ হাজার পর্যন্ত। 

বিকাশ পার্সোনাল রিটেইল একাউন্ট রেজিস্ট্রেশন এর প্রয়োজনীয় ডকুমেন্ট

দেখুন এটা আমরা প্রত্যেকে জানি যে কোন অ্যাকাউন্ট খোলার জন্য বেশ কিছু কাগজপত্র দির প্রয়োজন পড়ে। তাই বিকাশ পার্সোনাল রিটেইল একাউন্ট খোলার আগে আমাদেরকে জেনে নিতে হবে যে এই কাজটি করার জন্য আমাদের মূলত কি কি কাগজের প্রয়োজন পড়বে। 

✓অভিজ্ঞতার জন্য গুগল ক্রোম ব্রাউজার

✓মোবাইল সিমের মালিকানার প্রমাণপত্র

✓ জন্ম নিবন্ধন অথবা বৈধ জাতীয় পত্র

✓ একটি ভ্যালিড মোবাইল নম্বর।

✓ ছবি

✓ নমিনির জাতীয় পরিচয় পত্র ও ছবি।

আর এই ডকুমেন্টগুলো যদি আপনার কাছে থাকে তাহলে আপনি ঘরে বসে বিকাশ ওয়েবসাইট থেকে বিকাশ পার্সোনাল রিটেল একাউন্টে ক্লিক করে তাদের উল্লেখিত সকল শর্তাবলী মেনে খুব সহজে রেজিস্ট্রেশন করে ক্রিয়েট করতে পারবেন আপনার পার্সোনাল বিকাশ একাউন্ট। 

বিকাশ পার্সোনাল রিটেইল একাউন্ট রেজিস্ট্রেশন করার কৌশল বা পদ্ধতি কি?

বিকাশ পার্সোনাল রিটেইল একাউন্ট কি এবং এটা কিভাবে কাজ করে ও এর ব্যবহার কি এ পর্যন্ত আমরা বিস্তারিত জেনেছি। এখন কথা হচ্ছে আপনি কিভাবে বিকাশ পার্সোনাল রিটেল অ্যাকাউন্ট ক্রিয়েট করবেন? আসুন এ পর্যায়ে জেনে নেই বিকাশ পার্সোনাল রিটেল একাউন্ট খোলার সহজ নিয়ম সম্পর্কে।

প্রথমত: আপনাকে ভিজিট করতে হবে account.bkash.com এই লিংকে। 

দ্বিতীয়ত: বিকাশ পার্সোনাল রিটেল একাউন্টে ট্রাপ করতে হবে অর্থাৎ account.bkash.com/personal-retail-account/registration এই লিংকে প্রবেশ করতে হবে আপনাকে।

তৃতীয়ত: “আপনি আমাদের নিয়ম ও শর্ত সমূহে সম্মত আছেন”হ্যাঁ অথবা না দুইটি অপশন থাকবে। আপনার যদি উত্তর হ্যা হয়ে থাকে তাহলে আপনি হ্যাঁ বাটনে ট্রাপ করবেন। কেননা আপনি মূলত রেজিস্ট্রেশন করার উদ্দেশ্যই সেখানে প্রবেশ করেছেন। 

চতুর্থত: আপনি যে নাম্বারে রেজিস্ট্রেশন করছেন সেই নাম্বার বসাতে হবে সেই সাথে আপনার দেওয়া নাম্বার কি কোন অপারেটর অর্থাৎ গ্রামীন, রবি, বাংলালিংক, এয়ারটেল নাকি অন্য কিছু। সেটা সিলেক্ট করে সাবমিট করতে হবে। 

পঞ্চমত: আপনার মোবাইলে পরবর্তীতে কি ভেরিফিকেশন কোড আসবে যা ছয় ডিজিটের হবে। এ পর্যায়ে এসএমএসে আসা ৬ ডিজিটের কোডটি বসিয়ে আপনাকে নিশ্চিত করুন ট্র্যাপ করতে হবে।

ষষ্ঠমত: উল্লেখিত সকল ইনফরমেশন পূরণ করতে হবে আপনাকে। এ পর্যায়ে মূলত বিকাশ পার্সোনাল রিটেইল একাউন্ট এর জন্য আপনার পার্সোনাল কিছু ইনফরমেশন প্রদান করতে হবে। এক্ষেত্রে অবশ্যই একটা বিষয় মাথায় রাখবেন আপনার দেওয়া ইনফরমেশন গুলো কোন ভাবে যেন ভুল না হয়। তাই সাবমিট করার পূর্বে পুনরায় যাচাই-বাছাই করে সাবমিট বাটনে ট্রাপ করুন।

সপ্তমত: আপনার ছবি তুলে আপলোড করতে হবে। 

ব্যাস পরবর্তীতে আপনার কাছে কি কনফার্মেশন মেসেজ ও ওয়েলকাম লেটার আসবে যেখানে আপনি আইডি স্ট্যাটাস আপনার সম্পূর্ণরূপে দেখতে ও পড়তে পারবেন। 

বিশেষ দ্রষ্টব্য: বিকাশ পার্সোনাল রিটেইল একাউন্ট খোলার কাজ সম্পন্ন হলেও এর পরবর্তীতে আপনার সামনে আরেকটি কাজ তুলে ধরা হবে। সেটা হচ্ছে অ্যাকাউন্টে পিন নাম্বার সেটআপ। আর এজন্য আপনাকে মোবাইলের ডায়াল অপশন এ গিয়ে *২৪৭# করতে হবে। 

বিকাশ পার্সোনাল রিটেইল একাউন্ট এর সুবিধা সমূহ কি কি?

বিকাশ পার্সোনাল রিটেল একাউন্ট ব্যবহার করার মাধ্যমে আপনি মূলত নিচের সার্ভিস গুলো ভোগ করতে পারবেন। যথা: 

  • পেমেন্ট ও সেন্ট মানে ফ্যাসিলিটি
  • এজেন্ট এর মাধ্যমে এবং এটিএম বুথ থেকে ক্যাশ আউট সুবিধা
  • Personal retail accounts to ব্যাংক লিঙ্ক আপ এর সুযোগ। 

এক কথায় বিকাশ পার্সোনাল রিটেল একাউন্ট আপনাকে পাঁচটির অধিক সুবিধা প্রদান করবে। সেগুলো হলো:

✓বিকাশ নির্ধারিত এজেন্সির মাধ্যমে অথবা আবেদনকারী নিজেও সেলফ রেজিস্ট্রেশন পদ্ধতির মাধ্যমে ঘরে বসেই একাউন্ট খুলতে পারবেন। 

✓বিকাশ পার্সোনাল রিটেইল একাউন্ট খুলতে কোনো ট্রেড লাইসেন্স এর প্রয়োজন নেই। 

✓আবেদনকারী তার ব্যক্তিগত বিকাশ একাউন্ট এর পাশাপাশি একই জাতীয় পরিচয়পত্রের বিপরীতে নতুন মােবাইল নাম্বার দিয়ে পার্সোনাল রিটেইল একাউন্ট খুলতে পারবেন। 

✓একজন পার্সোনাল রিটেইল একাউন্ট হােল্ডারকে, গ্রাহক তার বিকাশ অ্যাপ থেকে, *২৪৭# ডায়াল করে কিংবা পেমেন্ট গেটওয়ে এবং পেমেন্ট লিংক ব্যবহার করে পেমেন্ট করতে পারবেন। 

✓পার্সোনাল রিটেইল একাউন্ট হােল্ডার যেকোনো বিকাশ কাস্টমার কে টাকা পাঠাতে পারবেন। পার্সোনাল রিটেইল একাউন্ট হােল্ডার যেকোনাে সময় বিকাশ এজেন্ট অথবা অনুমােদিত এটিএম এর মাধ্যমে টাকা উঠাতে পারবেন। 

✓একজন পার্সোনাল রিটেইল একাউন্ট হােল্ডার আরেকজন পার্সোনাল রিটেইল একাউন্ট হােল্ডারকে অথবা  বিকাশ এর অন্য যেকোনো মার্চেন্টকে  ব্যবসায়িক প্রয়ােজনে টাকা পাঠাতে পারবেন।

✓একজন পার্সোনাল রিটেইল একাউন্ট হােল্ডার, বিকাশ মার্চেন্ট অ্যাপ অথবা বিকাশ এর অন্যান্য পেমেন্ট প্লাটফর্ম ব্যবহার করতে পারবেন, যা কিনা তার ব্যবসার পরিধি বৃদ্ধিতে সহায়তা করবে।

ট্রেড লাইসেন্স ছাড়া উদ্যোক্তা বা ব্যবসায়ীদের বিকাশ পার্সোনাল রিটেইল একাউন্ট খোলার নিয়ম

অনেকের ট্রেড লাইসেন্স না থাকার কারণে এমনটা ভেবে থাকেন যে, হয়তো বিকাশে পার্সোনাল রিটেইল একাউন্ট খোলা সম্ভব হবে না। কিন্তু মজার ব্যাপার হলো আপনার যদি ট্রেড লাইসেন্স না থাকে তবুও আপনি অনলাইন ব্যবসার জন্য শুধুমাত্র আপনার জাতীয় পরিচয় পত্র ও মোবাইল নম্বর দিয়ে একাউন্ট খুলতে পারবেন। কিন্তু ট্রেড লাইসেন্স ছাড়া একাউন্ট খোলার ক্ষেত্রে আপনার করণীয় হবে বেশ কয়েকটা বিষয় মাথায় রাখা। সেগুলো হলো: 

  • সকল প্রকার তথ্য যেন আপনার স্মার্ট কার্ড অথবা জাতীয় পরিচয় পত্র অনুযায়ী প্রদান করা হয়।
  • বিজনেস পেজ এর নাম সেই সাথে রেজিস্ট্রেশনের সময় প্রদত্ত ব্যবসার নাম যেন এক হয়।
  • জাতীয় পরিচয় পত্র অর্থাৎ স্মার্ট কার্ডের ছবি যেন সুস্পষ্ট হয়
  • লাইফ ফটো তোলার সময় যেন চোখ খোলা থাকে। সেই সাথে চেষ্টা করবেন মার্জিত ভালো পোশাক পরার। 
  • ছবি তোলার সময় যেন আপনার আশেপাশে কাউকে না দেখা যায়।
  • বিজনেস পেজ বা গ্রুপের সঠিক লিংক সেই সাথে সিমের মালিকানার স্ক্রিনশট সুস্পষ্ট ভাবে প্রকাশ।

আর ঠিক একইভাবে যে বিষয়গুলো অবশ্যই বর্জন করতে হবে আপনাকে সেগুলো হলো:

  • ব্যক্তিগত প্রোফাইল লিংক 
  • ছবি থেকে ছবি তোলা
  • অভ্যন্তরীণ পোশাক পড়ে বা পোশাক না পড়ে অথবা চোখ বন্ধ করে অন্ধকারে লাইফ ফটো তোলা
  • দোকানে ছবির জন্য ডাউনলোড করা ফটো প্রদান করা
  • জাতীয় পরিচয় পত্রের কোন কিছু নিজে নিজে পরিবর্তন করা। 

বিকাশ পার্সোনাল রিটেইল একাউন্ট ট্রানজেকশন লিমিট কত?

আর্টিকেলের এ পর্যায়ে আমরা জানব বিকাশ পার্সোনাল রিটেইল একাউন্টে ট্রানজেকশন লিমিট সম্পর্কে। অর্থাৎ কাস্টমারের পেমেন্ট নেওয়ার সময় আপনি কত পর্যন্ত টাকা গ্রহণ করতে পারবেন টাকার লিমিট কত হবে ইত্যাদি বিস্তারিত। 

ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীদের জন্য নতুন ফিচার পার্সোনাল রিটেইল একাউন্ট ট্রানজেকশন লিমিট ৩০০০০ টাকা পর্যন্ত। তাই আপনি কাস্টমারের পেমেন্ট নিতে পারবেন এক টাকা থেকে শুরু করে সর্বোচ্চ ৩০ হাজার টাকা পর্যন্ত। আর প্রতি ট্রানজেকশনে সর্বোচ্চ ১০ হাজার টাকা লেনদেন করা যাবে আর মাসে ত্রিশ হাজার টাকা। 

বিকাশ মার্চেন্ট থেকে পার্সোনাল রিটেইল অ্যাকাউন্ট ট্রানজেকশন লিমিট কত?

অনেকেই প্রশ্ন করে থাকেন বিকাশ মার্জেন্ট থেকে মূলত কত পর্যন্ত টাকা পার্সোনাল রিটেইল অ্যাকাউন্টে ট্রান্সফার করা যাবে। অর্থাৎ আপনি যদি আপনার কাস্টমারের কাছ থেকে মার্চেন্ট থেকে আপনার বিকাশ পার্সোনাল রিটেইলে পেমেন্ট নিতে চান সেক্ষেত্রে সর্বোচ্চ কত টাকা আদান প্রদান করা সম্ভব! তাদেরকে বলব দিনে দশটি এবং মাসে ১০০ টি লেনদেন সম্ভব হবে। সেই সাথে প্রতি ট্রানজেকশনে ৫০০০ টাকা থেকে শুরু করে সর্বোচ্চ ২৫ হাজার টাকা পাঠানো সম্ভব হবে এবং মাসে এক লক্ষ টাকা লেনদেন করা যাবে।

পার্সোনাল রিটেইল একাউন্ট বা PRA-এর লেনদেন লিমিট এর তালিকা
লেনদেনের ধরন লেনদেনের বিস্তারিত ন্যূনতম লেনদেনের পরিমাণ (টাকা) দৈনিক লেনদেনের সংখ্যা মাসিক লেনদেনের সংখ্যা প্রতি লেনদেনের লিমিট (টাকা) দৈনিক লেনদেনের লিমিট (টাকা) মাসিক লেনদেনের লিমিট (টাকা)
গ্রাহকের পেমেন্ট গ্রহন গ্রাহক থেকে পার্সোনাল রিটেইল একাউন্ট যেকোনো অ্যামাউন্ট লিমিট নেই লিমিট নেই 10,000 30,000 3,00,000
পেমেন্ট পার্সোনাল রিটেইল একাউন্ট থেকে পার্সোনাল রিটেইল একাউন্ট 1 10 100 5,000 25,000 1,00,000
মার্চেন্ট থেকে পার্সোনাল রিটেইল একাউন্ট
মার্চেন্টের পেমেন্ট গ্রহন পার্সোনাল রিটেইল একাউন্ট থেকে পার্সোনাল রিটেইল একাউন্ট যেকোনো অ্যামাউন্ট 25,000 25,000 1,00,000
মার্চেন্ট থেকে পার্সোনাল রিটেইল একাউন্ট
সেন্ড মানি পার্সোনাল রিটেইল একাউন্ট থেকে গ্রাহক 1 5 30 10,000 10,000 1,00,000
ক্যাশ আউট এজেন্ট ক্যাশ আউট 1 5 30 20,000 20,000 3,00,000
ATM ক্যাশ আউট Q Cash: 2,000
Brac Bank: 2,500

 

পার্সোনাল রিটেইল একাউন্ট চার্জ/ফি
লেনদেন ধরণ চার্জ
গ্রাহকদের কাছ থেকে পেমেন্ট গ্রহণ ফ্রি
মার্চেন্ট পেমেন্ট রিসিভ
পার্সোনাল রিটেইল একাউন্ট থেকে পার্সোনাল রিটেইল একাউন্ট
পার্সোনাল রিটেইল একাউন্ট থেকে মার্চেন্ট
ফ্রি
মার্চেন্ট পেমেন্ট,
পার্সোনাল রিটেইল একাউন্ট থেকে পার্সোনাল রিটেইল একাউন্ট
পার্সোনাল রিটেইল একাউন্ট থেকে মার্চেন্ট (মার্চেন্ট প্লাস, মার্চেন্ট প্লাস লাইট এ অ্যান্ড বি, মাঝারি, ছোট এবং মাইক্রো)
০.২০%
সেন্ড মানি,
পার্সোনাল রিটেইল একাউন্ট থেকে কাস্টমার
৫/-
ব্যাংক অ্যাকাউন্ট (পরবর্তী পর্ব) ১.৩%

মার্চেন্ট অ্যাপের ব্যবহার 

  • যেকোনো পার্সোনাল রিটেইল একাউন্ট হোল্ডার চাইলেই গুগল প্লে স্টোর থেকে বিকাশ মার্চেন্ট অ্যাপ ডাউনলোড করে নিয়মানুযায়ী ব্যবহার করতে পারবেন।
  • -সেন্ড মানি

সেন্ড মানি করার জন্য মোবাইলের *২৪৭# ডায়াল করে ১ সিলেক্ট করুন। এরপর নিচের ধাপগুলো অনুসরণ করুন

ধাপ-১

ধাপ-২

ধাপ-৩

ধাপ-৪

ধাপ-৫

*২৪৭# ফাইনাল ডিসপ্লে

সেন্ডার-এর এসএমএস নোটিফিকেশন

রিসিভার-এর এসএমএস নোটিফিকেশন

1. Send Money

Enter receiver bKash Account No:

Enter Amount:

Enter Reference:

Send Money.
To: <customer_account_no>
Amount: Tk  <amount>
Reference: <reference>
Enter Menu PIN to confirm:

Send Money Tk <amount> to <payee_Account_no> successful. Ref <reference>. Fee Tk <fee>. Balance Tk <curr_bal>. TrxID <trxRef>

Send Money Tk <amount> to <payee_Account_no> successful. Ref <reference>. Fee Tk <fee>. Balance Tk <curr_bal>. TrxID <trxRef> at <DD/MM/YYYY hh:mm>

You have received Tk <amount> from <payer_Account_no>. Ref <reference>. Fee Tk <fee>. Balance Tk <curr_bal>. TrxID <trxRef> at <DD/MM/YYYY hh:mm>

-মার্চেন্ট পেমেন্ট

মার্চেন্টের পেমেন্ট করার জন্য মোবাইলের *২৪৭# ডায়াল করে ২ সিলেক্ট করুন। এরপর নিচের ধাপগুলো অনুসরণ করুন

ধাপ-১

ধাপ-২

ধাপ-৩

ধাপ-৪

ধাপ-৫

*২৪৭# ফাইনাল ডিসপ্লে

সেন্ডার-এর এসএমএস নোটিফিকেশন

রিসিভার-এর এসএমএস নোটিফিকেশন

2.Merchant Payment

Enter Merchant Account No:

Enter Amount:

Enter Reference:

Merchant Payment.
To: <merchant_account_no>
Amount: Tk  <amount>
Reference: <reference>

<Merchant name>

Enter Menu PIN to confirm:

Merchant Payment Tk <amount> to <Merchant name> <payee_Account_no> successful. Ref <reference>. Fee Tk <fee>. Balance Tk <curr_bal>. TrxID <trxRef>

Merchant Payment Tk <amount> to <Merchant name> <payee_Account_no> successful. Ref <reference>. Fee Tk <fee>. Balance Tk <curr_bal>. TrxID <trxRef> at <DD/MM/YYYY hh:mm>

You have received Tk <amount> from <Merchant name> <merchant_Account_no>. Ref <reference>. Fee Tk <fee>. Balance Tk <curr_bal>. TrxID <trxRef> at <DD/MM/YYYY hh:mm>

-এজেন্ট থেকে ক্যাশ আউট 

মোবাইলের *২৪৭# ডায়াল করে এজেন্ট ক্যাশ আউট-এর জন্য ৩ সিলেক্ট করুন। এরপর নিচের ধাপগুলো অনুসরণ করুন

ধাপ-১

ধাপ-২

ধাপ-৩

ধাপ-৪

ধাপ-৫

*২৪৭# ফাইনাল ডিসপ্লে

সেন্ডার-এর এসএমএস নোটিফিকেশন

রিসিভার-এর এসএমএস নোটিফিকেশন

3. Agent Cash Out

Enter agent account no.

Enter Amount:

Enter Reference:

Cash Out.
To: <agent_account_no>
Amount: Tk  <amount>
Reference: <reference>

<agent name>

Enter Menu PIN to confirm:

Cash Out Tk <amount> to <agent name > <payee_Account_no> successful. Ref <reference>. Fee Tk <fee>. Balance Tk <curr_bal>. TrxID <trxRef>

Cash Out Tk <amount> to <agent name> <payee_Account_no> successful. Ref <reference>. Fee Tk <fee>. Balance Tk <curr_bal>. TrxID <trxRef> at <DD/MM/YYYY hh:mm>

You have received Tk <amount> from <merchant name> <merchant_Account_no>. Ref <reference>. Fee Tk <fee>. Balance Tk <curr_bal>. TrxID <trxRef> at <DD/MM/YYYY hh:mm>

ধাপ-১

ধাপ-২

ধাপ-৩

ধাপ-৪

ধাপ-৫

*২৪৭# ফাইনাল ডিসপ্লে

সেন্ডার-এর এসএমএস নোটিফিকেশন

রিসিভার-এর এসএমএস নোটিফিকেশন

3. Agent Cash Out

Enter agent account no.

Enter Amount:

Enter Reference:

Cash Out.
To: <agent_account_no>
Amount: Tk  <amount>
Reference: <reference>

<agent name>

Enter Menu PIN to confirm:

Cash Out Tk <amount> to <agent name > <payee_Account_no> successful. Ref <reference>. Fee Tk <fee>. Balance Tk <curr_bal>. TrxID <trxRef>

Cash Out Tk <amount> to <agent name> <payee_Account_no> successful. Ref <reference>. Fee Tk <fee>. Balance Tk <curr_bal>. TrxID <trxRef> at <DD/MM/YYYY hh:mm>

You have received Tk <amount> from <merchant name> <merchant_Account_no>. Ref <reference>. Fee Tk <fee>. Balance Tk <curr_bal>. TrxID <trxRef> at <DD/MM/YYYY hh:mm>

-এটিএম থেকে ক্যাশ আউট

মোবাইলের *২৪৭# ডায়াল করে এটিএম ক্যাশ আউট-এর জন্য ৪ সিলেক্ট করুন। এরপর নিচের ধাপগুলো অনুসরণ করে ব্যালেন্স চেক করুন

ধাপ-১

ধাপ-২

ধাপ-৩

ধাপ-৪

4. ATM Cash Out

Enter your bKash Mobile Menu PIN to request ATM Cash Out

Enter the Security Code received through SMS

Follow ATM instructions to complete

-ব্যালেন্স চেক

মোবাইলের *২৪৭# ডায়াল করে My bKash-এর জন্য ৫ সিলেক্ট করুন। এরপর নিচের ধাপগুলো অনুসরণ করে ব্যালেন্স চেক করুন

ধাপ-১

ধাপ-২

ধাপ-৩

*২৪৭# ফাইনাল ডিসপ্লে

5.My bKash

1.Check Balance

Enter Menu PIN:

Your current bKash Account balance is <curr><curr_bal>. Your available bKash Account balance is <curr><avail_bal>.

-২৪৭# ডায়াল করে পার্সোনাল রিটেইল একাউন্টের স্টেটমেন্ট রিকোয়েস্ট

মোবাইলের *২৪৭# ডায়াল করে My bKash-এর জন্য ৫ সিলেক্ট করুন। এরপর নিচের ধাপগুলো অনুসরণ করুন

ধাপ-১

ধাপ-২

ধাপ-৩

*২৪৭# ফাইনাল ডিসপ্লে

সেন্ডার-এর এসএমএস নোটিফিকেশন

রিসিভার-এর

এসএমএস নোটিফিকেশন

 

5.My bKash

2.Request Statement

Enter Menu PIN:

Latest <n> transactions in below format:
1.DD/MM/YY (Trans. Type) – Tk {Amt}
2.DD/MM/YY (Trans. Type) – Tk {Amt}
3.DD/MM/YY (Trans. Type) – Tk {Amt}

Merchant Payment:
<trxType> Tk  <amount>
Fee Tk <fee_amount>
From <payer_Account_no>
To <receiver_Account_no>
Ref <reference>
TrxID <trxRef>
At <DD/MM/YYYY time>

M2D Transfer:
<trxType> Tk  <amount>
Fee Tk <fee_amount>
From <payer_Account_no>
To <receiver_Account_no>
Ref <reference>
TrxID <trxRef>
At <time>

D2M Transfer:
<trxType> Tk  <amount>
Fee Tk <fee_amount>
From <payer_Account_no>
To <receiver_Account_no>
Ref <reference>
TrxID <trxRef>
At <time>

Payment:
<trxType> TK  <amount>
Fee TK <fee_amount>
From <payer_Account_no>
To <receiver_Account_no>
Ref <reference>
Counter <till_number>
TrxID <trxRef>
At <DD/MM/YYYY time>

-PIN পরিবর্তন

আপনার মোবাইলের *২৪৭# ডায়াল করে My bKash-এর জন্য ৫ সিলেক্ট করুন। এরপর নিচের ধাপগুলো অনুসরণ করে PIN বদলে নিন

ধাপ ১

ধাপ-২

ধাপ-৩

ধাপ-৪

Level-5 ধাপ-৫

*২৪৭# ফাইনাল ডিসপ্লে

5.My bKash

3.Change Mobile Menu PIN

Enter Old PIN:

Enter New PIN:

Confirm New PIN:

Your Mobile Menu PIN has been changed successfully.

 

বিস্তারিত আরও জানতে ভিজিট করুন https://www.bkash.com/bn/personal-retail-account এই লিংকে। তো সুপ্রিয় পাঠক বন্ধুরা, আশা করি আমাদের দেওয়া ইন্সট্রাকশন অনুসরণ করে আপনি খুব সহজে বিকাশ পার্সোনাল রিটেইল একাউন্ট খুলে ফেলতে পারবেন। তবুও যদি আরো কিছু জানার থাকে বা অ্যাকাউন্ট খোলার সময় কোন সমস্যায় পড়েন তাহলে আমাদের কমেন্ট করে জানান। পরবর্তীতে যেকোন পোষ্টের আপডেট পেতে ও নোটিফিকেশন পেতে আমাদের ওয়েবসাইট সাবস্ক্রাইব করে রাখুন ধন্যবাদ।

About Shanto Khan

Tech Shanto is a Bangladeshi YouTuber and Freelancer who loves to share his experience with all. If you want to learn awesome tips and tricks with Tech Shanto then stay connected.

View all posts by Shanto Khan →

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *